,

আহত সেই অন্তঃসত্ত্বার মৃত বাচ্চা প্রসব

জেলা প্রতিনিধি, ময়মনসিংহ: অবশেষে অন্তঃসত্ত্বা আনোয়ারা বেগম (৩২) শনিবার সন্ধ্যায় ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলা হাসপাতালে একটি মৃত বাচ্চা প্রসব করেছেন।

গত বুধবার বিকালে প্রতিপক্ষের মারধরের হাত থেকে স্বামী ও দেবরের সন্তানকে বাঁচাতে গিয়ে আহত হয়েছিলেন তিনি। এরপর থেকে অবস্থার অবনতি ঘটতে থাকলে গত শুক্রবার তাকে ওই হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। আনোয়ারা উপজেলার আত্তারামপুর গ্রামে শহীদ মিয়ার স্ত্রী।

সন্ধ্যায় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের প্রসূতি ওয়ার্ডে গিয়ে দেখা যায়, আনোয়ারা বেগম অচেতন অবস্থায় শুয়ে আছেন। শয্যার একপাশে তার চাচি মৃত সন্তানকে কোলে নিয়ে বসে আছেন। অন্যপাশে স্বামী শহীদ মিয়া কান্না করছেন।

শহীদ মিয়া জানান, তাদের বাড়ি নান্দাইল উপজেলার আতারামপুর গ্রামে। জমিজমার মালিকানা নিয়ে চাচাতো ভাই পাশের রামকৃষ্ণপুর গ্রামের রোকন মিয়ার (৫০) সাথে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছে। এ বিরোধ নিয়ে ঈশ্বরগঞ্জের সহকারী জজ আদালতে মোকদ্দমা রয়েছে। কিন্তু রোকন মিয়াসহ অন্যরা জোরপূর্বক তাদের পুরো জমি দখল করতে চাইছে।

শহীদ মিয়া আরও জানান, গত বুধবার রোকন মিয়া দলবলসহ দেশীয় অস্ত্র নিয়ে বাড়িতে প্রবেশ করে তার ওপর হামলা চালায়। এ সময় তার ভাই রফিক উদ্দিনের ছেলে শাহীন মিয়া (২২) হামলকারীদের বাধা দিতে এগিয়ে আসে। তখন শাহীনকেও তারা মারধর শুরু করে। তা দেখে স্বামী ও শাহীন মিয়াকে বাঁচাতে ছুঁটে আসেন আনোয়ারা বেগম। হামলাকারী তাকেও মারধর করে আহত করে।

এ ঘটনায় শহীদ মিয়ার ভাই রফিক মিয়া বাদী হয়ে রোকন মিয়াসহ ১৭ জনের বিরুদ্ধে গত শুক্রবার নান্দাইল মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা নান্দাইল মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আসাদুজ্জামান জানান, মামলা দায়েরের পর অভিযুক্তরা গা-ঢাকা দিয়েছে।

এই বিভাগের আরও খবর


AllEscort