,

বশেমুরবিপ্রবি ৪ দিনের জন্য বন্ধ ঘোষণা

জেলা প্রতিনিধি, গোপালগঞ্জ: গোপালগঞ্জে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি) শিক্ষার্থীকে ‘সংঘবদ্ধ ধর্ষণের’ ঘটনায় শিক্ষার্থীদের লাগাতার বিক্ষোভ কর্মসূচির মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয় ৪ দিনের জন্য বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

সোমবার থেকে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের সব ক্লাস-পরীক্ষা বন্ধ থাকবে বলে রোববার বিকেলে ঘোষণা দিয়েছেন প্রক্টর রাজিউর রহমান।

অ্যাকাডেমিক কাউন্সিলের জরুরি সভা শেষে ভারপ্রাপ্ত রে‌জিস্ট্রার মোরাদ হো‌সেন এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

গত ২৩ ফেব্রুয়ারি রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রী জেলা প্রশাসন স্কুল অ্যান্ড কলেজের নির্মাণাধীন ভবনে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগ করেন। বিষয়টি জানাজানি হলে শিক্ষার্থীরা সড়ক অবরোধ করেন। থানায় অভিযোগ করে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

ওই ছাত্রীর একাধিক সহপাঠী জানান, গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার নবীনবাগের হেলিপ্যাড এলাকায় দাঁড়িয়ে বন্ধুর সঙ্গে কথা বলছিলেন ওই ছাত্রী। সে সময় একটি অটোরিকশা থেকে নেমে সাত-আটজন ছাত্র তাদের গোপালগঞ্জ জেলা প্রশাসন স্কুল অ্যান্ড কলেজের নির্মাণাধীন ভবনে নিয়ে যায়। সেখানে বন্ধুকে মারধর করে ওই ছাত্রীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ করে।

এ ঘটনার প্রতিবাদে শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা সড়ক অবরোধ করলে তাদের ওপর হামলা চালানো হয়। এতে অন্তত ৫০ জন আহত হন বলে জানিয়েছেন শিক্ষার্থীরা।

বুধবার রাতেই বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর রাজিউর রহমানের লিখিত আবেদন মামলা হিসেবে নেয় গোপালগঞ্জ সদর থানা পুলিশ। মামলায় কারও নাম উল্লেখ করা হয়নি। এখন পর্যন্ত ১০ জনকে গ্রেপ্তার করার কথা জানিয়েছে র‍্যাব ও পুলিশ।

ধর্ষণের অভিযোগ জানাজানি হওয়ার পর থেকেই বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা অভিযুক্তদের গ্রেপ্তার ও সর্বোচ্চ শাস্তির দাবিতে লাগাতার বিক্ষোভ কর্মসূচি চালিয়ে যাচ্ছে। সেই সঙ্গে তারা অবরোধে হামলাকারীদেরও শাস্তির দাবি জানিয়েছে।

হামলার বিষয়টি সামনে এনে শনিবার ক্ষোভ প্রকাশ করেন আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের মুখপাত্র বাংলা বিভাগের স্নাতকোত্তর শ্রেণির ছাত্র আব্দুল্লাহ আল রাজু।

এই বিভাগের আরও খবর


AllEscort