,

প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে সরকারি গাছ কাটার অভিযোগ

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি: ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার খকশা এলাকায় কিসমত পলাশবাড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে টেন্ডার ছাড়াই বিদ্যালয়ের ৬ টি কাঠাল গাছ কাটার অভিযোগ উঠেছে।

শুক্রবার বিকেলে সরেজমিনে ওই বিদ্যালয়ে দেখা যায় বিদ্যালয়টির দুই পাশে প্রাচীর নির্মাণের কাজ চলছে আর অপর পাশে রাস্তার ধারে শ্রমিকেরা প্রধান শিক্ষকের নির্দেশে কাঠাল গাছ কাটছে।

স্থানীয়রা প্রথমে গাছ কাটতে নিষেধ করলে প্রধান শিক্ষক তাদের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নির্দেশে কাটা হচ্ছে বলে জানালে স্থানীয়রা সরে যায়। স্থানীয়দের মতে গাছ ছয়টির মূল্য প্রায় লক্ষাধিক টাকা।

সিরাজুল,মিরাজ হোসেনসহ ওই এলাকার একাধিক ব্যক্তি জানান, এই সময় বিদ্যালয় বন্ধ। ছুটির দিন প্রশাসনের লোকজনও আসবে না এ সুযোগে প্রধান শিক্ষক ইসলামউদ্দীন উপজেলা প্রকৌশলীকে হাত করে গাছ বিক্রির টাকা আত্মসাতের চেষ্টা করছে। এর আগের ওই প্রধান শিক্ষক আরো ২০ গাছ বিক্রি করে টাকা আত্মসাৎ করেছে।

অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক ইসলামউদ্দীন আগের গাছের টাকা আত্মসাতের বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন, বিদ্যালয়টির প্রাচীরের কাজ চলছে সে জন্য উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবরে গাছ কাটার জন্য আবেদন করেছিলাম। সেই আবেদনের আলোকে গাছ কাটা হচ্ছে। ইউনিয়ন পরিষদে জমা রাখা হবে গাছ গুলো,পরে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোফাজ্জল হোসেন মন্ডল বলেন, কিসমত পলাশবাড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের গাছ কাটার বিষয়ে অবগত নয়। দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা যোবায়ের হোসেন বলেন, গাছ কাটার বিষয়ে কোন নির্দেশনা দেওয়া হয়নি। টেন্ডার ছাড়া সরকারি প্রতিষ্ঠানের গাছ কাটার নিয়ম নেই। বিষয়টি তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা করা হবে।

এই বিভাগের আরও খবর


AllEscort