,

পৌষের শুরুতে শৈত্যপ্রবাহে কাঁপছে দেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক: পৌষের দিন শুরু হয়েছে। উত্তরের হাওয়া জোড়ালো বইছে। ঘন হয়ে ওঠেছে কুয়াশা। দেশজুড়ে জেঁকে বসেছে শীত। দেশের তিনটি বিভাগে শৈত্যপ্রবাহ বইছে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। আরও দুই দিন এ শৈত্যপ্রবাহ থাকবে, এরপর তাপমাত্রা একটু বাড়বে। ২৪ ডিসেম্বর থেকে আবার শৈত্যপ্রবাহ শুরু হতে পারে বলে আভাস দিয়েছে আবহাওয়া অফিস।

সোমবার (২০ ডিসেম্বর) দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে চুয়াডাঙ্গায়, ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। গড়ে দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৭ দশমিক ৬ থেকে ৭ ডিগ্রিতে আছে।

গত কয়েক দিনে শীতের আমেজ বেড়েছে রাজধানীতেও। সোমবার ঢাকায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১৪ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আর চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে দিনের সর্বোচ্চ ২৭ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়েছে।

আবহাওয়াবিদ আরিফুর রহমান জানান, শৈত্যপ্রবাহ বইতে শুরু করেছে। বিশেষ করে রাজশাহী, রংপুর, খুলনা ও বরিশাল বিভাগের অনেক অঞ্চলের উপর দিয়ে মৃদু থেকে মাঝারি ধরনের শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে। এটি আরও দুদিন স্থায়ী হতে পারে এবং আরও এলাকায় বিস্তার লাভ করতে পারে।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের সবশেষ পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, গোপালগঞ্জ, রাজশাহী, পাবনা, নওগাঁ, কুড়িগ্রাম, পঞ্চগড়, যশোর, কুষ্টিয়া, চুয়াডাঙ্গা ও বরিশাল অঞ্চলে মৃদু থেকে মাঝারি ধরনের শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে। এ শৈত্যপ্রবাহ থাকবে আগামী আরও দুই দিন, আর এর বিস্তৃতি হতে পারে।

আগামী ২৪ ঘণ্টায় দিনের তাপমাত্রা অপরিবর্তিত থাকবে। দেশের দক্ষিণাঞ্চলে রাতের তাপমাত্রা কমলেও দেশের অন্যত্র তাপমাত্রা একই রকম থাকবে।

বড় এলাকাজুড়ে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নিচে নেমে গেলে তাকে তীব্র শৈত্যপ্রবাহ হিসেবে ধরা হয়। আর তাপমাত্রা ৬-৮ ডিগ্রির মধ্যে থাকলে মাঝারি এবং তাপমাত্রা ৮-১০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে থাকলে তাকে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ বলে।

এই বিভাগের আরও খবর


AllEscort