,

পল্লী চিকিৎসকের বিরুদ্ধে গৃহকর্মীকে ধর্ষণের অভিযোগ

জেলা প্রতিনিধি, গোপালগঞ্জ:  গোপালগঞ্জের মুকসুদপুরে এক পল্লী চিকিৎসকের বিরুদ্ধে গৃহকর্মীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে।

শুক্রবার (৬ মে) সন্ধ্যায় ভূক্তভোগী ওই নারী পল্লী চিকিৎসক নিধান মন্ডলের বিরুদ্ধে থানায় ধর্ষণের অভিযোগ করেছেন। ঘটনার পর থেকেই পলাতক রয়েছেন অভিযুক্ত নিধান মন্ডল।

মুকসুদপুর থানা পুলিশের পরিদর্শক (তদন্ত) খন্দকার আমিনুল ইসলাম অভিযোগের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, প্রায় দেড় বছর ধরে পল্লী চিকিৎসক নিধান মন্ডলের বাড়িতে গৃহকর্মীর কাজ করছেন ওই নারী। নিধান মন্ডলের স্ত্রী চারু হালদার কাশিয়ানী উপজেলা সাব রেজিষ্ট্রারি অফিসে চাকরি করেন। এ কারণে নিধান মন্ডল বাড়িতে একাই থাকেন। গত ১ মে বিকালে নিধান মন্ডল ওই গৃহকর্মীকে মোবাইলে কল করে তার বাড়িতে আসতে বলেন। সেখানে গেলে নিধান মন্ডল তাকে দোতলার এক কক্ষে বসতে বলে মূল ফটকে তালা লাগিয়ে দেন। পরে তাকে ধর্ষণ করেন।

ধর্ষণের শিকার ওই নারী বলেন, ‘অন্যের বাসায় কাজ করে সংসার চালাই। এর আগেও কয়েকবার ওই চিকিৎসক আমাকে কু-প্রস্তাব দেয়। সেদিন মোবাইলে কল করে আমাকে তার বাসায় যেতে বলেন। আমি সেখানে গেলে বাড়ির গেট বন্ধ করে আমাকে ধর্ষণ করেন।’

মুকসুদপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) খন্দকার আমিনুল ইসলাম জানান, শুক্রবার সন্ধ্যায় ওই নারী ধর্ষণের অভিযোগ করেছেন। বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এই বিভাগের আরও খবর


AllEscort