,

‘ঘরবাড়ি ভাংচুর’; ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মামলা

জেলা প্রতিনিধি, গোপালগঞ্জ: ঘরবাড়িতে হামলা, ভাংচুর ও লুটপাটের অভিযোগে গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী উপজেলার ওড়াকান্দি ইউপি চেয়ারম্যান বদরুল আলম বিটুলসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে।

মঙ্গলবার (১২ এপ্রিল) দিবাগত রাতে ভূক্তভোগী মান্নান শিকদার বাদী হয়ে কাশিয়ানী থানায় মামলাটি দায়ের করেন।

মামলার অন্য আসামীরা হলেন, বাদল মোল্যা, শাহাবুদ্দিন মোল্যা, সিজান মোল্যা, শামীম মোল্যা, মুক্তাকিন মোল্যা, নাঈম মোল্যা, সদ্ধি মোল্যা, নয়ন মিয়া, জাহাঙ্গীর মোল্যা ও ফয়সাল মোল্যা। তারা সকলে ওড়াকান্দি ইউনিয়নের তিলছড়া গ্রামের বাসিন্দা।

কাশিয়ানী থানার ওসি (তদন্ত) মুহাম্মদ ফিরোজ আলম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

মামলার এজাহারে জানা গেছে, গত ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে বদরুল আলম বিটুলের নির্বাচন না করে তার প্রতিদ্ব›দ্বী প্রার্থী ফেরদাউস হোসেনের নির্বাচন করায় বাদী তিলছড়া গ্রামের মান্নান শিকদার ও তার পরিবারের সদস্যদের সাথে বিটুলের দ্ব›েদ্বর সৃষ্টি হয়। এরই জের ধরে গত ৯ এপ্রিল রাতে ইউপি চেয়ারম্যান মো. বদরুল আলম বিটুল ও তার লোকজন লোহার রড, চাপাতি, শাবল, হকিস্টিকসহ দেশীয় অস্ত্র নিয়ে সংঘবদ্ধ হয়ে বাদীর বসতবাড়িতে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাংচুর ও লুটপাট করে। ঘরে ঢুকে নগদ টাকা, স্বর্ণালংকার ও জিনিসপত্র ছিনিয়ে নিয়ে যায় তারা।
বাঁধা দিতে গেলে বাড়িতে থাকা বাদী ও তার স্ত্রী ডলি বেগমকে এলোপাতাড়ি মারপিট ও অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে।

ইউপি চেয়ারম্যান বদরুল আলম বিটুল বলেন, ‘বাদী অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন। তারা উল্টো আমার ভাগ্নেকে মারধর করেছে। আমি ও আমার কোন লোক এ ধরণের ঘটনার সাথে সম্পৃক্ত না।’

কাশিয়ানী থানার ওসি (তদন্ত) মোহাম্মদ ফিরোজ আলম বলেন, ভূক্তভোগীর অভিযোগের প্রেক্ষিতে মামলা দায়ের করা হয়েছে। আসামীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

এই বিভাগের আরও খবর


AllEscort