,

কাশিয়ানীতে ‘স্ত্রীর যৌতুক মামলায়’ ইমাম গ্রেফতার

জেলা প্রতিনিধি, গোপালগঞ্জ:  স্ত্রীর করা যৌতুক মামলায় গোপালগঞ্জের কাশিয়ানীতে মো. তৈয়াবুর রহমান নাজিম (৩৮) নামে এক মসজিদ ইমামকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার (৮ফেব্রুয়ারি) বিকালে উপজেলার দরিপদ্মবিলা নিজ গ্রাম থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। নাজিম ওই গ্রামের হাসান কাজীর ছেলে। তিনি উপজেলার তেঘরিয়া গ্রামের ওমর বিন খাত্তাব (রা.) জামে মসজিদে ইমামতি করতেন।

কাশিয়ানীর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) দেওয়ান সাদেকুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, ২০১০ সালে উপজেলার গোয়ালগ্রামের হাবিবুর রহমানের মেয়ে মাহমুদা খানমকে পারিবারিকভাবে বিয়ে করেন মো. তৈয়াবুর রহমান নাজিম। কয়েক বছর সংসার করার পর মনোমালিন্যের কারণে স্ত্রী মাহমুদাকে তালাক দেন নাজিম। এরপর নাজিম দ্বিতীয় বিয়ে করে চার বছর সংসার করার পর তাকেও তালাক দেন। পুনরায় প্রথম স্ত্রী মাহমুদাকে পারিবারিকভাবে বিয়ে করেন তিনি। বিয়ের পর থেকে নাজিম যৌতুকের দাবিতে বিভিন্ন সময় তার স্ত্রী মাহমুদাকে নির্যাতন করেন। এক পর্যায় মাহমুদা তার বাবার বাড়ি থেকে ৮০ হাজার টাকা এনে নাজিমকে যৌতুক দেন। পুনরায় নাজিম যৌতুক দাবি করলে মাহমুদা দিতে অস্বীকৃতি জানালে তাকে বেধড়ক মারপিট করেন নাজিম। নির্যাতন সহ্য করতে না পেয়ে মঙ্গলবার মাহমুদা কাশিয়ানী থানায় একটি যৌতুক ও নারী নির্যাতন মামলা দায়ের করেন। এ মামলায় অভিযান চালিয়ে নাজিমকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

কাশিয়ানী থানার ওসি মোহাম্মাদ মাসুদ রায়হান জানান, তৈয়াবুর রহমান নাজিমকে আজ বুধবার আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হবে।

উল্লেখ্য, মসজিদে বয়ান করার সময় রাষ্ট্রবিরোধী উস্কানীমূলক বক্তব্য প্রদান, ইসলাম ও সমাজবিরোধী কর্মকান্ডের সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে মো. তৈয়াবুর রহমানের বিরুদ্ধে এরআগে ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয় ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে অভিযোগ করেছেন ওই মসজিদ কমিটির সভাপতি।

এই বিভাগের আরও খবর


AllEscort