,

কাশিয়ানীতে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে বাড়িঘর ভাংচুরের অভিযোগ

জেলা প্রতিনিধি, গোপালগঞ্জ:  ইউপি নির্বাচনের দ্বন্দের জের ধরে বাড়িঘর ভাংচুর ও লুটপাটের অভিযোগ উঠেছে গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী উপজেলার ওড়াকান্দি ইউপি চেয়ারম্যান ও তাঁর সমর্থকদের বিরুদ্ধে।

এ ঘটনার তিনদিন পরেও মামলা নেয়নি কাশিয়ানী থানার পুলিশ বলে অভিযোগ ভূক্তভোগী পরিবারের।

শনিবার (৯ এপ্রিল) রাত ৮টার দিকে উপজেলার ওই ইউনিয়নের তিলছড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় ওই ইউপি চেয়ারম্যান ও তার ভাইসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে কাশিয়ানী থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন ক্ষতিগ্রস্থ মান্নান শিকদার।

অভিযোগ ও ভূক্তভোগীরা জানান, গত ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে বদরুল আলম বিটুলের নির্বাচন না করে তার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ফেরদাউস হোসেনের নির্বাচন করায় মান্নান শিকদার ও তার পরিবারের সদস্যদের সাথে বিটুলের দ্বন্দ্বের সৃষ্টি হয়। এরই জের ধরে শনিবার রাতে ইউপি চেয়ারম্যান মো. বদরুল আলম বিটুল ও তার লোকজন লোহার রড, চাপাতি, শাবল, হকিস্টিকসহ দেশীয় অস্ত্র নিয়ে মান্নান শিকদারের বসতবাড়িতে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাংচুর ও লুটপাট করে। বাঁধা দিতে গেলে বাড়িতে থাকা মান্নান শিকদার (৬৫) ও তার স্ত্রী ডলি বেগমকে (৫০) এলোপাতাড়ি মারপিট ও অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে। এ সময় তারা নগদ টাকা, স্বর্ণালংকার ও জিনিসপত্র ছিনিয়ে নিয়ে যায়।

ইউপি চেয়ারম্যান বদরুল আলম বিটুল বলেন, ‘আমি ভাংচুরের বিষয় কিছুই জানি না। তারা আমার ভাগ্নেকে মারধর করেছে। হয়তো তারা নিজেরা ভেঙে আমাদের বিরুদ্ধে উল্টো মামলা করার চেষ্টা করছেন।’

কাশিয়ানী থানার ওসি মোহাম্মদ মাসুদ রায়হান বলেন, ‘ভূক্তভোগী পরিবার থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন। তবে তাদের পূর্ণাঙ্গ অভিযোগের প্রাপ্তির সাপেক্ষে আমরা আইনানুগভাবে মামলা রেকর্ড করবো।’

এই বিভাগের আরও খবর


AllEscort