,

অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে খাল দখলের অভিযোগ

জেলা প্রতিনিধি, বরগুনা: বরগুনার পাথরঘাটায় খাল দখল করে পাকা স্থাপনা নির্মাণের অভিযোগ উঠেছে এনামুল হক জব্বার (৭০) নামে এক অবসরপ্রাপ্ত অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে। বিষয়টি নিয়ে প্রতিবাদ জানিয়ে হুমকির মুখে পড়েছেন স্থানীয় কৃষকরা।

কৃষকদের অভিযোগ, পাথরঘাটা উপজেলার কাকচিড়া ইউনিয়নের রূপধন কাটাখালী বাজার সংলগ্ন খালের উপর ব্রিজ ও কালভার্টের অংশ দখল করে স্থাপনা করছেন প্রভাবশালী ওই অধ্যক্ষ। খাল দখলের ফলে শত শত একর জমির চাষাবাদ হুমকির মুখে পড়বে বলে দাবি কৃষকদের।

অভিযুক্ত এনামুল হক পাথরঘাটা উপজেলার কাকচিড়া ইউনিয়নের রূপধন কাটাখালী এলাকার মৃত মনছুর আলীর ছেলে। তিনি পাথরঘাটা মাজহার উদ্দিন টেকনিক্যাল বিজনেস এন্ড ম্যানেজমেন্ট কলেজের অবসরপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ।

স্থানীয় কৃষকরা জানান, শুধু খাল দখলই নয় প্রভাব ও টাকার জোড়ে সাধারণ মানুষের জমিজমা মিথ্যা দলিলপত্র তৈরি করে দখল করারও অভিযোগ রয়েছে অধ্যক্ষ ও তার সহযোগীদের বিরুদ্ধে। এসব নিয়ে আদালতে মামলা চলমান থাকার পরেও কোন প্রকার তোয়াক্কা না করে নির্মাণ কাজ করে যাচ্ছেন অধ্যক্ষসহ তার সহযোগিরা।

সরেজমিনে গেলে স্থানীয়রা অভিযোগ করে বলেন, খালটি নিজেদের দাবি করে খালের মধ্যে পাকা স্থাপনা করেছেন অধ্যক্ষ এনামুল হক। খালের পানি চলাচলের গতিপথ নষ্ট করে রাতে অতিরিক্ত লোক নিয়ে দ্রুত নির্মাণ কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন এনামুল হক ও তার সহযোগীরা।

আ. লতিফ, জসিম, হায়দার আলী ও শিরীনসহ একাধিক ভুক্তভোগী বলেন, তার হুমকি ও দাপটে কেউ মুখ খোলার সাহস পায়না। আমরা প্রশাসনের কাছে সহযোগিতা কামনা করছি।

এ ব্যাপারে সাবেক অধ্যক্ষ এনামুল হক জব্বার বলেন, আদালতে মামলা চললেও ওই জমি আমাদেরই। আর দেশের বিভিন্ন স্থানের মানুষ খাল ঘেঁষে স্থাপনা করতে পারলে আমি কেন পারব না ?

পাথরঘাটা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল বাশার জানান, আদালতের নোটিশ পেয়েও কাজ চালিয়ে যাওয়া ও হুমকি ধমকি দেওয়ার লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

পাথরঘাটা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) হুসাইন মোহাম্মদ আল মুজাহিদ জানান, সরকারি জমি দখল করে খালের উপর অবৈধ স্থাপনা নির্মাণ করলে তা উচ্ছেদ করা হবে। ঘটনাস্থলে ভূমি অফিসের একটি দল পাঠানো হয়েছে।

এই বিভাগের আরও খবর


AllEscort